সরকারের পতন অনিবার্য, জনগণ রাস্তায় নেমে এসেছে,, : আব্দুস সালাম

তথ্যানুসন্ধান ডেস্ক: (প্রকাশের তারিখ: 21-Oct-2022)
বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ বলেছেন, এ সরকারের কোন গণভিত্তি নেই। আমরা সভা সমাবেশ করতে গেলেই তারা পুলিশ, গুন্ডা বাহিনী লেলিয়ে দেয়। নিরস্ত্র জনগণ এ সকল সমাবেশ সফল করেছে। আগামী শনিবার খুলনায় সমাবেশ। সে কর্মসূচি বন্ধ করতে তারা হরতাল ডেকেছে, বাস বন্ধ করে দিয়েছে। আপনারা যতই রাস্তা বন্ধ করেন, বাংলাদেশের জনগণকে আর দাবিয়ে রাখা যাবে না। জনগণ রাস্তায় নেমে এসেছে। এ সরকারের পতন অনিবার্য।

বৃহস্পতিবার (২০ অক্টোবর) বিকেলে নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সারাদেশে নেতাকর্মীদের ধরপাকড়, মিথ্যা মামলা দায়ের, জামিন বাতিল করে নেতাকর্মীদের কারাগারে প্রেরণ, পুলিশি হামলা ও আওয়ামী সন্ত্রাসীদের নির্যাতনের প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিক্ষোভ সমাবেশে একথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, আজ দেশের সংকটকালীন সময়ে গনতন্ত্রকে হত্যা করেছে এই এক দলীয় সরকার। ২০১৮ সালের নির্বাচনে মানুষ যদি ভোট দিতে পারে তাহলে শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকবেন না, এটা বোঝার পরেই তারা আগরে রাতে ভোটকেন্দ্র দখল করে ভোট দিয়ে ক্ষমতা দখল করে আছেন। এরশাদের আমলে আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়া বলেছিল আমি গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার আগ পর্যন্ত ঘরে যাবো না। ঠিক তেমন করে আবারও খালেদা জিয়ার উত্তরসূরী আমাদের নেতা তারেক রহমান বাংলাদেশের জনগণের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে বলেছেন বাংলাদেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার আগ পর্যন্ত আমরা জনগণের পাশে আছি।

তিনি আরও বলেন, আরেকটি প্রহসনের নির্বাচন করার পাঁয়তারা চলছে। আমরা স্পষ্ট বলেছি আপনাদের অধীনে কোন নির্বাচন বাংলার মাটিতে হবে না৷ তারা বাংলাদেশের গণতন্ত্রকে ধ্বংস করতে চায়। গণতন্ত্রকে হত্যা করে তারা এক দলীয় বাকশাল করতে চায়। বাংলাদেশের মাটিতে আপনাদের বিচার হবে বাংলাদেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা হবে।

সালাম বলেন, এ সরকার কয়েকদিন আগে একজন সচিব ও তিনজন এসপিকে বরখাস্ত করা হয়েছে। পুলিশের মধ্যে বিদ্রোহ লক্ষ্য করেছে সরকার। আজ পুলিশের বিরুদ্ধে এ সরকার কাজ করছে।

এসময় মহানগর বিএনপির আহবায়ক অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান, সদস্য সচিব আবু আল ইউসুফ খান টিপু, যুগ্ম আহবায়ক ফাতেহ মোঃ রেজা রিপন, মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি শাহেদ আহমেদ, মহানগর যুবদলের আহবায়ক মমতাজউদ্দিন মন্তু, সদস্য সচিব মনিরুল ইসলাম সজল, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা ছাত্রদলের সভাপতি রাকিবুর রহমান সাগর, সদর থানা ছাত্রদলের সভাপতি কাজী নাহিসুল ইসলাম সাদ্দাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। অপরদিকে শহরের মন্ডলপাড়ায় পৃথকভাবে বিক্ষোভ সমাবেশের কর্মসূচী পালন করেছে মহানগর বিএনপির বিদ্রোহী গ্রুপের নেতাকর্মীরা। সমাবেশে মহানগর বিএনপি নেতা আতাউর রহমান মুকুল বলেছেন, আপনারা বলেন মানুষ বিএনপির সাথে নাই। তাহলে কেন নির্বাচন দিতে ভয় পান। নির্বাচন দিয়ে দেখেন বাংলাদেশের মানুষ কাকে ভোট দেয়।

তিনি বলেন, এখনও সময় আছে সঠিক পথে আসুন। পরে পালাবার পথ পাবেন না। আমরা বিএনপির সৈনিক জিয়ার সৈনিক। ১০ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জ থেকে জনসমুদ্র বের হবে। আমরা নারায়ণগঞ্জ থেকে হেঁটে ঢাকা যাবো। ইতোমধ্যে আমরা প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছি। সমাবেশে মহানগর বিএনপি নেতা জাকির হোসেন, আব্দুস সবুর সেন্টু, ফখরুল ইসলাম মজনু, কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ, আওলাদ হোসেন, ফারুক হোসেন, সরকার আলম, মনির মল্লিক প্রমুখ।

এই বিভাগের আরো খবর